দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0

সময় এখন ডেস্ক:

দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন করা হবে।

শনিবার (২০ মার্চ) দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার পার্বতী নগর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণের একটি সভায় ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এ সময় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামফলক উম্মোচনের উদ্বোধন করা হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সালাহ উদ্দিন ভুঁইয়ার উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে লক্ষ্মীপুর প্রান্তে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সফিউজ্জামান ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ, পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান, পৌর মেয়র আবু তাহের, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল হুদা পাটওয়ারী সহ আরো অনেকেই।

সুরঞ্জিতের সুনামগঞ্জ সাম্প্রদায়িক নয়: মতিয়া

সুনামগঞ্জ কেন, সারা দেশেই স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি বা অপশক্তি ষড়’যন্ত্রের চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী।

তিনি বলেন, যেখানে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মতো নেতা নির্বাচিত হন, সেখানের মানুষ সাম্প্রদায়িক চেতনায় আচ্ছন্ন হবে, এটা অবিশ্বাস্য। এটা গভীর ষড়’যন্ত্র।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের ৮ম মৃ’ত্যুবার্ষিকী পালন কমিটির উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে শনিবার দুপুরে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মতিয়া চৌধুরী এসব কথা বলেন।

জিল্লুর রহমান মৃ’ত্যুবার্ষিকী পালন কমিটির সভাপতি এম এ করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সস্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, অনুষ্ঠানে মানবসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীমসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সুনামগঞ্জে কখনও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হয়নি উল্লেখ করে সাবেক কৃষিমন্ত্রী বলেন, সত্তরে প্রাদেশিক পরিষদের ভোটে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত নির্বাচিত হয়েছিলেন। সেখানে সাধারণ মানুষ পক্ষে না থাকলে সুরঞ্জিতের পক্ষে পাস করে আসা সম্ভব ছিল না। সেই জায়গা সম্পর্কে কেউ যদি আজ বলে, সেখানে মানুষ সাম্প্রদায়িক, আমি অন্তত বিশ্বাস করব না।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের কথা উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেন, আজ প্রধানমন্ত্রীর পাশে জিল্লুর ভাইয়ের দরকার ছিল। তিনি সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মগ্রহণ করেন নাই। জিল্লুর ভাই রাষ্ট্রপতি ছিলেন, মন্ত্রী ছিলেন কিন্তু তার ভেতরে অনেক বড় সংকল্প কাজ করেছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সস্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আজকে বিএনপির নেতারা গণতন্ত্রের কথা বলেন। এই দল ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দেশে সন্ত্রা’সী তা’ণ্ডব চালিয়েছিল। গণতন্ত্রকে কবর দিয়েছে।

এই দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু হ’ত্যার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রক্ষমতায় আসার পরে গণতন্ত্রের কবর রচনা করেছিলেন। সেই দলের নেতাদের কাছ থেকে এখন গণতন্ত্রের কথা শুনতে হচ্ছে।

শেয়ার করুন !
  • 1.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!