পুলিশ দেখে মশাল মিছিল ছেড়ে পালালো বিএনপি নেতাকর্মীরা

0

অনলাইন ডেস্ক:

রাজধানীর বনানী এলাকায় মশাল মিছিল বের করেছে বিএনপি। দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির কয়েক’শ নেতা-কর্মী মিছিলে অংশ নেন। কিন্তু মিছিলটি বনানী থেকে কাকলির দিকে কিছু দূর যাওয়ার পর রাস্তায় পুলিশ দেখে মশাল মিছিল ছেড়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় বিএনপির নেতাকর্মীরা।

ঘটনাটি গতকাল বিকেল ৫টার।

বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম বলেন, অনুমতি ছাড়াই বিএনপির নেতাকর্মীরা হঠাৎ করেই মশাল মিছিল বের করে। তখন সামনে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা মশালগুলো রাস্তায় ফেলে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি বলে জানান বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

হাফিজের নেতৃত্বে আসছে নতুন বিএনপি

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অব. হাফিজ উদ্দিন আহমদ বীর বিক্রমকে গত ১৪ ডিসেম্বর দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয় বিএনপি। দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত ওই শোকজ নোটিশ পেয়ে ১৯ ডিসেম্বর জবাব দেন তিনি।

পরে তার সেই শোকজ নোটিশ প্রত্যাহার করা না হলেও বরিশালের এক সমাবেশে তাকে প্রধান অতিথি করা হয়। সে সময় হাফিজ উদ্দিনের বিরু’দ্ধে দলীয় সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে বরিশালের নেতাকর্মীরা এ উদ্যোগ নেন।

বরিশালে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান ও ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তমের মতো সিনিয়র নেতা থাকতেও মেজর হাফিজকে কেন প্রধান অতিথি করা হলো জানতে চাইলে বরিশালের সাবেক মেয়র ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, এ সিদ্ধান্ত কেন্দ্র থেকে দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (বরিশাল বিভাগ) মাহবুবুল হক নান্নু জানালেন ভিন্ন কথা।

এক প্রশ্নের জবাব নান্নু বলেন, ১৮ ফেব্রুয়ারি বরিশালে সমাবেশের আয়োজন করে মহানগর কমিটি। ওই সমাবেশে যাকে প্রধান অতিথি করা হয়েছে তিনি বিত’র্কিত। এক-এগারোর সময় তার কর্মকাণ্ডে নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। দলের অনেক ত্যাগী নেতাকর্মী ওই সমাবেশে যাননি।

বিএনপির বরিশালের সাবেক মেয়র বলেন, তাহলে পুরো বরিশাল শহরই মাঠে পরিণত হবে। মেজর হাফিজের বিষয়ে তিনি বলেন, আমার ধারণা তার শোকজ নোটিশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে তিনি বিএনপির সব অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন। জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে গুলশানের সংবাদ সম্মেলনেও তিনি উপস্থিত থেকে কথা বলেছেন। আর তাকে আমরা প্রধান অতিথি করিনি। কেন্দ্র থেকে এই সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্র কোনো সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর আমাদের আর বক্তব্য থাকে না।

শেয়ার করুন !
  • 53
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!