ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়া হেফাজত কর্মী গ্রেপ্তার

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের পরম মিত্র ভারতের প্রতিনিধি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর বিরোধী আন্দোলনের সহিং’সতা ও তা’ণ্ডবের অংশ হিসেবে সারাদেশের মত ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেও ব্যাপক অরাজকতা চালিয়েছে হেফাজতে ইসলাম।

ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় তা’ণ্ডবে পুলিশের সাঁজোয়া যানে আগুন দেওয়ার অভিযোগে হেফাজতে ইসলামের এক কর্মীকে গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার বিকেলে পুলিশের অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের একটি দল গাজীপুর সদর থানাধীন শিমুলতলীর ভূইয়া পাড়া জামে মসজিদ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

গ্রেপ্তার জাকারিয়া আহমেদ প্রীতম (২৭) ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নোয়াগা সরাইল এলাকার নাসির উদ্দিনের ছেলে। ওই তা’ণ্ডবের ঘটনায় ৩১ মার্চ সরাইল থানায় করা মামলার আসামি তিনি।

অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের অপারেশন উইং এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাখাওয়াত হোসেন জানান, জাকারিয়া গত ২৮ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের তা’ণ্ডবে পুলিশের এপিসির উপরে উঠে গ্যালনভর্তি পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছিলেন। সেই না’শকতার ফুটেজ পরীক্ষা করে জাকারিয়াকে শনাক্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন. সেই না’শকতার সময় জাকারিয়া পুলিশি অ্যাকশনে আহত হন। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তার এক আত্মীয়ের বাসায় গা ঢাকা দেন। সেখান থেকে পালিয়ে ঢাকার উত্তরার এক হাসপাতালে কিছুদিন চিকিৎসা নেন এবং গাজীপুরে গিয়ে আবারও গা ঢাকা দেন।

পুলিশের অভিযানের মুখে জাকারিয়া আহমেদ প্রীতম পরে সেখান থেকে পালিয়ে গাজীপুরে এক বাসা ভাড়া নিয়ে মা ও ছোটভাইকে নিয়ে পলাতক অবস্থায় বসবাস করেছিলেন বলে জানান তিনি।

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ঘিরে হেফাজতে ইসলাম দেশের কয়েকটি জায়গায় ব্যাপক সহিং’সতা ও তা’ণ্ডব চালায়। তারই অংশ হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এই পুলিশের গাড়ি পোড়ানোর ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনার পর হেফাজতের নেতা-কর্মীদের ধরপাকড় চলমান রয়েছে।

এখন পর্যন্ত উগ্রবাদী এই সংগঠনের বিশ জনেরও বেশি কেন্দ্রীয় নেতা এবং দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে কয়েকশ নেতাকর্মী আটক হয়েছেন।

শেয়ার করুন !
  • 547
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!