বই দেয়ার কথা বলে বাসায় নিয়ে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, মাদ্রাসা শিক্ষক পলাতক

0

বরগুনা সংবাদদাতা:

এক মাদ্রাসা শিক্ষকের ঘৃণ্য লালসার শিকার হলো তারই ৮ম শ্রেণিতের পড়ুয়া ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নে। মুমূর্ষু অবস্থায় ওই ছাত্রীকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থা অবনতি হওয়ায় সন্ধ্যা ৬টায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। এদিকে ঘটনার পর আত্মগোপনে আছে অভিযুক্ত শিক্ষক।

চিকিৎসক ডাঃ শাকিল তানভীর জানান, প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের আলামত মিলেছে। ধর্ষণের শিকার মেয়েটির অবস্থা অত্যন্ত গুরুতর।

জানা যায়, বরগুনার ৩নং ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের রফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৮ম শ্রেণিতে পড়ে একই পরিবারের দুই বোন। রবিবার বেলা ১২টার দিকে মাদ্রাসা চলাকালে শারীরিক শিক্ষা বিষয়ের শিক্ষক সাইফুল কৌশলে বই দেয়ার কথা বলে মাদ্রাসার পাশে তারা বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে ঘরের ২য় তলায় জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

এদিকে এই ঘটনার কিছুক্ষণ পর বোনকে ক্লাসে না দেখে খুঁজতে শুরু করে তার অপর বোন। হঠাৎ কান্নার শব্দ শুনে শিক্ষকের বাড়িতে গিয়ে বোনকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায় সে। পরে স্থানীয়রা ও অভিভাবকরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

এ ঘটনা শুনে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে দ্রুত চলে আসেন পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ধর্ষককে ধরতে ইতিমধ্যেই মাঠে নেমেছেন তারা।

ধর্ষণের অভিযুক্ত শিক্ষক সাইফুলের বাবা ঐ মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক এবং ফুলঝুরি ইউনিয়নের ইউপি সদস্য।

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ঝিনাইদহে ধর্ষণ, আসামী পলাতক

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের গোলাম নবী মোল্ল্যার ছেলে জুয়েল রানা (৩০) রামচন্দ্রপুর নতুন বাজার নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিয়ের কথা বলে ধর্ষণ করে। এ বিষয়ে শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ছাত্রী বায়সা গ্রামের ইকরাজ আলীর মেয়ে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, ৪ বছর ধরে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে ধর্ষক জুয়েল রানা ওই ছাত্রীকে কু-প্রস্তাবসহ বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী তার প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয়। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। গত ১২ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে জুয়েল ওই ছাত্রীকে রামচন্দ্রপুর গ্রামের খেজুর বাগানের সেচ পাম্পের কাছে আসতে বলে। সেখানে এক পর্যায়ে জুয়েল তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক জুয়েল পলাতক রয়েছে বলে জানান এসআই সম্বিত রায়।

শেয়ার করুন !
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply