বাড়ি ফিরতে ১০ মিনিট দেরি করায় স্ত্রীকে ফোনে তালাক!

0

কলকাতা প্রতিনিধি:

বাড়ি ফিরে আসতে নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে মাত্র ১০ মিনিট দেরি করেছিলেন স্ত্রী। আর সেই অপরাধেই ফোন করে তাকে ৩ তালাক দিল স্বামী। এই ঘটনায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন স্ত্রী। ভারতের উত্তর প্রদেশের আলিগঞ্জ এলাকায় ঘটেছে এমন ঘটনা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানা যায়, অভিযোগকারী নারী তার বাবার বাড়ি গিয়েছিলেন অসুস্থ দাদিকে দেখতে। স্বামী তাকে আধ ঘণ্টার মধ্যে ফিরে আসার নির্দেশ দিয়েছিলেন। ওই নারী তাতে সম্মতিও দেন। কিন্তু পরে দেখা যায় আধ-ঘণ্টার ডেডলাইনের মধ্যে ফিরতে পারেননি তিনি। তাতেই রেগে গিয়ে স্ত্রীকে ৩ তালাক দিয়ে দেন ওই ব্যক্তি।

অভিযোগকারী নারী জানান, আমি বাবার বাড়ি গিয়েছিলাম অসুস্থ দাদিকে দেখতে। আমার স্বামী আমাকে নির্দেশ দেন আধ ঘণ্টার মধ্যে ফিরে আসতে। আমি মাত্র ১০ মিনিট দেরি করি। এরই মধ্যে ও আমার ভাইয়ের মুঠোফোনে আমাকে ফোন করে।

তিনি জানান, আমি ফোনটা ধরামাত্রই ৩ বার ‘তালাক’ শব্দ উচ্চারণ করে। ওর এমন নিষ্ঠুর পদক্ষেপে আমি হতভম্ব হয়ে যাই। শুধু তাই নয়, শ্বশুরবাড়ির লোকদের বিরুদ্ধে নিয়মিত শারীরিক ও মানসিক অত্যাচারেরও অভিযোগ এনেছেন ওই নারী।

তিনি জানিয়েছেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়া হলে আত্মহত্যা করা ছাড়া কোনও উপায় থাকবে না তার কাছে।

তিনি আরও বলেন, আমাকে সুবিচার পাইয়ে দেওয়া ভারত সরকারের দায়িত্ব, প্রশাসন যদি তা না করতে পারে তাহলে আমার আত্মহত্যা ছাড়া কোনও উপায় থাকবে না। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।

ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিমকোর্ট ইতিমধ্যেই ৩ তালাক প্রথাকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেছে। তিন তালাককে অপরাধ হিসেবে গণ্য করার জন্য লোকসভায় বিলও পাশ হয়েছে।

সৌদি আরবে ১ মাসে বিয়ে ১০ হাজার, তালাক ৫ হাজার!

হঠাৎ করেই সৌদি প্রশাসনের কপালের ভাঁজ বেড়ে গেছে দেশটিতে বিবাহ বিচ্ছেদের হার দ্বিগুণ হয়ে যাওয়ায়। পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মাত্র এক মাসেই ১০ হাজার বিয়ের নিবন্ধন হয়েছে। আর তালাক হয়েছে ৫ হাজার। সেখানে এমনিতেই বিচ্ছেদের হার অস্বাভাবিক বেশি। যত বিয়ে হয় তার ১৭ শতাংশই বিচ্ছেদে গড়ায়। আর গত শাওয়াল মাসে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ শতাংশ।

সৌদি আরবের আইন মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে এই পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে দেশটির আল-হায়াত পত্রিকার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বলে খবর দিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিয়ে বিচ্ছেদের হার বেড়ে যাওয়ার পেছনে অনেক কারণ রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দম্পতিদের মধ্যে বিয়ের অবমূল্যায়ন, সত্যিকার সম্পর্ক ও দায়িত্বের প্রতি অবহেলা, সমকামিতা, রাতে দেরি করে স্বামীর বাড়ি ফেরা, মদ্যপান, শারীরিক নির্যাতন, গৃহকর্মীদের সাথে যৌন সম্পর্ক ইত্যাদি।

শেয়ার করুন !
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!