কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড: ওবায়দুল সমীর রচিত মুক্তিযুদ্ধের কিশোরগল্প

0

বিশেষ প্রতিবেদক:

মুক্তিযুদ্ধ বীর বাঙালির এক গৌরবময় উপাখ্যান। ৩০ লাখ শহীদ এবং ৬-৮ লক্ষ মা বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে পাওয়া এই কষ্টার্জিত স্বাধীনতার পর যখন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাঙালি জাতি ঘুরে দাঁড়াচ্ছিল, তখনই পরাজিত শত্রুদের ষড়যন্ত্রে বাঙালির জীবনে নেমে আসে ঘোর অমানিষার অন্ধকার। আর গাঢ় কালিমায় ঢেকে দেয়া হয় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং স্বাধীনতার গৌরবোজ্জ্বল উপাখ্যান।

দীর্ঘ সময় ধরে এ দেশের শিশু কিশোর তরুণরা বঞ্চিত ছিল মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানার সুযোগ থেকে। কিন্তু সত্য যেমন কখনও চাপা থাকে না, তেমনি ধীরে ধীরে আমরা বেরিয়ে আসি আবার আলোকধারায়। আর এজন্য আমরা ঋণী মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী লেখক, সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবীদের কাছে। তারাই অতীত খুঁড়ে তুলে এনেছেন সেসব ইতিহাস। কখনও গল্পের ছলে, কখনও ছড়া-কবিতায়, কখনও নিজেদের অভিজ্ঞতা থেকে।

এমনই একজন শক্তিমান লেখক ওবায়দুল সমীর। যিনি কোমলমতি শিশু কিশোরদের জন্য অবিরত লিখে চলেছেন বীর বাঙালির সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য উপাখ্যান মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে। শিশু কিশোরদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন সেই চেতনা।

এবারের বইমেলায় বেরিয়েছে তাঁর “কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড” নামক গল্পগ্রন্থটি। শব্দশিল্প প্রকাশন থেকে প্রকাশিত সম্পূর্ণ চার রঙে ছাপা ৩২ পৃষ্ঠার ক্রাউন সাইজের গ্রন্থটির দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদটি করেছেন মোমিন উদ্দীন খালেদ এবং অলংকরণ করেছেন ফারজানা পায়েল। মূল্য রাখা হয়েছে ১৬৫ টাকা। বইমেলার প্রথমদিন থেকেই শব্দশিল্প প্রকাশন এর ৬৬৯/৬৭০ নং (শিশু কর্ণার) স্টলে বইটি পাওয়া যাচ্ছে।

সন্তানের মন-মননে দেশপ্রেম, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, ইতিহাস এবং দেশাত্মবোধ সৃষ্টিতে এমন সৃষ্টিশীল বইয়ের কোনো তুলনা হয় না।

লেখক পরিচিতি:

কবি ও ছড়াকার ওবায়দুল সমীর শিশু সাহিত্যিক হিসেবে ইতোমধ্যেই পাঠক মহলে সমাদৃত হয়েছেন। ছড়া রচনার পাশাপাশি কিশোর কবিতা অঙ্গনেও তাঁর পদচারণা স্বতঃস্ফূর্ত। তাঁর রচিত সাহিত্যকর্মে দেশপ্রেম, মা-মাটি-মানুষ এবং শিশু মনস্তত্বের বিষয়টি সুন্দরভাবে ফুটে ওঠে। পেশায় আইনজীবী এই সাহিত্যিকের লেখালেখির শুরু ১৯৮৬ সাল থেকে।

ওবায়দুল সমীর ১৯৬৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি শেরপুর জেলা সদরের মধ্য শেড়ী পাড়া, মিয়া বাড়ির সম্ভ্রান্ত সৈয়দ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা- মরহুম সৈয়দ আবদুল ওয়াহেদ, মাতা- সৈয়দা বেগম। স্ত্রী জেবুন্নেসা চৌধুরী এবং এক কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জনক ওবায়দুল সমীর ১৯৯৫ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এল এল বি ডিগ্রি নিয়ে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য হিসেবে আইন পেশায় নিয়োজিত আছেন। বর্তমানে সরকারি আইন কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

লেখকের উল্লেখযোগ্য গ্রন্থসমূহ:

স্মৃতির অরণ্যে তুমি (কাব্যগ্রন্থ-১৯৯৪), খাইছেরে ভাই খাইছে (ছড়াগ্রন্থ-২০১০), মন হারানোর দিন (কিশোর কবিতা-২০১১), ভূতের হাতে হাতকড়া (কিশোর গল্প-২০১১), ওলট পালট (ছড়াগ্রন্থ-২০১২), ঝড়ের শেষে (উপন্যাস-২০১৩), পটলার পল্টু ভাই (কিশোর উপন্যাস ২০১৩)…

শেয়ার করুন !
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply