খালেদা-তারেকের রাজ্যে মির্জা ফখরুলরা কর্মচারী মাত্র!

0

স্পেশাল করেসপন্ডেন্স:

পরিস্থিতি অনুযায়ী সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ, নেতৃত্ব নিয়ে দ্বিধা, আদর্শচ্যুতি, দলের অভ্যন্তরে গণতান্ত্রিক চর্চার অভাব ও তৃণমূল থেকে দৃষ্টি ফিরিয়ে নেয়ার কারণে রাজনীতিতে কঠিন সময় পার করছে বিএনপি। দলটির সাবেক নেতাদের মতে, দলে গণতন্ত্রের চর্চা সীমিত হওয়ার কারণেই একের পর এক ব্যর্থতা জমা হয়েছে বিএনপির ঝুলিতে।

এছাড়া ব্যর্থতা দূর করতে হাইকমান্ডের অদূরদর্শিতা ও অনীহাই বিএনপিকে ক্রমান্বয়ে দুর্বল করেছে বলেও মনে করছেন তারা।

প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য হলেও দলের ভবিষ্যত না দেখে বেশ কয়েক বছর আগে দল ত্যাগ করা সাবেক বিএনপি নেতা শমসের মুবিন চৌধুরীর বীর বিক্রমের মতে, বিএনপিতে যোগ্য নেতারা সঠিক মূল্যায়ন পান না। নেতৃত্ব ও পরিকল্পনা নিয়ে সত্য কথা বলায় অনেকেই আজ বিএনপি ত্যাগ করেছে। আমি তো বলব, আদর্শচ্যুতির কারণেই বিএনপির এই চরম দুর্দশা।

এছাড়া দলটির অভ্যন্তরে গণতান্ত্রিক চর্চা নেই বললেই চলে। শুনতে খারাপ লাগলেও এটি সত্য যে, বিএনপি চালায় মা-ছেলে। খালেদা জিয়া বিএনপির মহারানী ও তারেক রহমান যুবরাজ। আর মির্জা ফখরুলরা চাকর-বাকরের ভূমিকা পালন করছেন। স্বল্প শিক্ষিত ও অর্ধ-শিক্ষিত মানুষ দিয়ে দল পরিচালনা করা সম্ভব নয়।

বড় সমস্যা হলো, দুর্নীতি-অনিয়ম ও নেতৃত্বের দুর্বলতা নিয়ে কথা বললেই আপনি বিএনপিতে ব্রাত্য হয়ে পড়বেন। আপনাকে হয় বের করে দেয়া হবে, না হয় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হবে যে, সম্মান বাঁচাতে আপনি বাধ্য হবেন বিএনপি ছাড়তে।

আক্ষেপ নিয়ে সাবেক এই নেতা আরো বলেন, বিএনপি কেবলমাত্র রাজধানীকেন্দ্রিক দলে পরিণত হয়েছে। তৃণমূলে বিএনপির রাজনীতি প্রায় মৃতপ্রায়। এটির জন্য বিএনপির হাইকমান্ডের অনীহাকে দায়ী করব আমি। কেউ তৃণমূল নেতাদের খোঁজ নেয় না, তাদের বিপদে কোন সহায়তা করে না হাইকমান্ড। বিতৃষ্ণা, হতাশা থেকে দল ছাড়ছেন বিএনপির অনেক নেতা-কর্মী।

বিএনপির আরেক সাবেক নেতা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বলেন, আমি সবসময় স্পষ্ট কথা বলতাম, যার কারণে আমি বিএনপিতে ব্রাত্য হয়ে পড়ি। সিনিয়র নেতারা তো কেউ কাউকে সহ্য করতে পারেন না। তৃণমূলের নেতাদের মূল্যায়ন না করলে বিএনপি কখনোই ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না।

শিকড়ে জোর না থাকলে সেই গাছ শক্তিশালী হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে পারে না। তৃণমূলকে আগে দাঁড় করাতে হবে, তবেই বিএনপি সর্বোপরি শক্তিশালী হবে। আর চেষ্টা করতে হবে, দুর্নীতিবাজ, চালবাজ নেতারা যেন বিএনপির নেতৃত্বে না আসে। বাংলানিউজব্যাংক।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!