করোনার ধাক্কা সামলানোর তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

0

স্বাস্থ্য বার্তা ডেস্ক:

করোনা ভাইরাসের ধাক্কা সামাল দিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। জাপানের নিক্কি কোভিড-১৯ রিকভারি সূচকে উঠে এসেছে এমন তথ্য।

জাপানের শীর্ষস্থানীয় ইংরেজি দৈনিক নিক্কি এশিয়া সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা, টিকাদান কর্মসূচি এবং সামাজিক গতিশীলতার ওপর ভিত্তি করে প্রতি মাসের শেষ দিকে বৈশ্বিক এই করোনা ভাইরাস সূচক প্রকাশ করে আসছে।

বিশ্বের ১২১টি দেশ ও অঞ্চলের করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি পর্যালোচনার পর চারটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে এই সূচকটি তৈরি করা হয়। এতে দেশগুলোর প্রাপ্ত স্কোর ছিল ০ থেকে ৯০-এর মধ্যে।

বুধবার (৬ অক্টোবর) নিক্কির প্রকাশিত সূচক অনুযায়ী, বাংলাদেশের আগের চেয়ে ৪৮ ধাপ উন্নতি হয়েছে। ১২১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ বর্তমানে ২৬তম স্থানে রয়েছে।

বাংলাদেশ ৯০ স্কোরের মধ্যে ৬০ পেয়ে দক্ষিণ এশিয়ার ৬টি দেশের মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করছে। এই অঞ্চলে বাংলাদেশের পর দ্বিতীয় স্থানে আছে পাকিস্থান; করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশটি ৫৮.৫ স্কোর পেয়েছে। বৈশ্বিক হিসেবে পাকিস্থানের অবস্থান ৩৩তম।

দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ ভারত ৩য় অবস্থানে রয়েছে। দেশটির বৈশ্বিক অবস্থান ৪০তম। এরপর রয়েছে নেপাল ৪৪তম এবং শ্রীলঙ্কা ৬১তম।

এই অঞ্চলে সবচেয়ে তলানিতে আছে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান। বিশ্বে দেশটির অবস্থান ৯৭তম। নিক্কি এশিয়ার এর আগের সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৪তম।

বৈশ্বিক তালিকার শীর্ষে থাকা ৫টি দেশ হলো, মাল্টা, চিলি, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সৌদি আরব।

২০ হাজার ছাড়াল এ বছরের ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ২১১ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে এ বছরে দেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ১২৯ জনে। যার মধ্যে অক্টোবর মাসে রোগী ভর্তি হয়েছেন ১ হাজার ৯৩২ জন।

রবিবার (১০ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন করে আরও ৩ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এ নিয়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এ বছরে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৭৬ জন। যার মধ্যে মধ্যে অক্টোবর মাসে মারা গেছেন ৭ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ১৬৪ জন এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৪৭ জন।

নতুন ২১১ জন নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৬৭ জনে।

ঢাকার ৪৫টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৭৯৫ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৭২ জন।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!