চবিতে তার প্যাঁচানো, টেপ মোড়ানো বেগুন উদ্ধার!

0

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বোমাতঙ্কের অবসান ঘটলো। আইন অনুষদ ভবনের সামনে বোমা রাখা হয়েছে- খবরটি ছড়িয়ে পড়ার পর এক আতঙ্কজনক অবস্থার সৃষ্টি হয়। পরে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট সেখান থেকে বোমা সদৃশ টেপ মোড়ানো, তার প্যাঁচানো একটি বেগুন উদ্ধার করা হয়। এটিকে বোমার আদলে বানানো হয়েছে যাতে ক্যাম্পাসে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি হয়, এমনটাই ধারণা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।

আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে এটি নিষ্ক্রিয় করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা। এতে সিএমপির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের ৫ সদস্যের একটি টিম অংশ নেয়।

নিষ্ক্রিয়করণের পর হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, কেউ বেগুন দিয়ে বোমা তৈরি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে এ কাজ করেছে। পরে সিএমপির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট তা নিষ্ক্রিয় করে। এটি নিয়ে আতঙ্কের কিছুই নেই। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, এ রকম একটি বিষয়ের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। পরে সিএমপির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে বিষয়টি অবহিত করি। তারা আজ বেলা ১১টার দিকে এসে নিশ্চিত করেন এটি কোনো বোমা নয়, একটি বেগুনকে কালো টেপ মুড়িয়ে এবং তার পেঁচিয়ে বোমা সদৃশ বানানো হয়েছে। ক্যাম্পাসে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে কেউ এমনটা করেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে আইন অনুষদের ডিনের কার্যালয়ের সামনে বোমা সদৃশ ওই বস্তু পড়ে থাকতে দেখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রহরীরা পুলিশকে খবর দেয়। পরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ৫ সদস্যের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে তা নিষ্ক্রিয় করে।

এর আগে বুধবার সীতাকুণ্ডের ভোলাগিরা এলাকার একটি গলি থেকে একটি পরিত্যক্ত বোমা উদ্ধার করে সেটি নিস্ক্রিয় করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। সেই প্রসঙ্গে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের প্রধান রাজেশ বড়ুয়া জানান, সীতাকুণ্ডে পাওয়া বস্তুটি বোমাই ছিল। মোটা কাগজের পাইপের ভেতরে দুইপাশে বারুদ, সাউন্ড ডিভাইস, ব্যাটারি, সার্কিট ও লাইট ছিল। মানুষকে জখম করার মত কোনো ধাতব পদার্থ না থাকলেও সেটি বিস্ফোরিত হলে আতঙ্ক সৃষ্টি করার মতো বস্তু ছিল বোমাটিতে।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!