শাহনাজের পর এবার শাহজাহানের বাইক উদ্ধার, ডাকাত আটক ১ দিনেই

0

সময় এখন ডেস্ক:

শাহজাহান সরকার। রাইড শেয়ারিং অ্যাপ উবারে ভাড়ায় মোটর বাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। বয়স ৪০ এর কাছাকাছি। একমাত্র সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করেন তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার বেগুনবাড়ি এলাকায়।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি তারিখ রাত ১১টা ৫০ এর দিকে পুলিশ প্লাজা কনকর্ড এলাকায় অবস্থান করছিলেন তিনি। উদ্দেশ্য উবারে কল পেলে সেটা শেষ করেই ফিরবেন বাসায়। রাত অনুমান ১২টা ৫-এ উবার কল পেয়ে গুলশাল লিংক রোড হয়ে মহাখালীর দিকে যাচ্ছিলেন শাহজাহান সরকার। পথে ঘটলো বিপত্তি।

শান্তা ওয়েসটার্ন টাওয়ারের কাছে পৌঁছামাত্র পুলিশ পরিচয়ে একজন সিগন্যাল দিয়ে তার মোটর বাইক থামায়। পাশেই দাঁড় করানো ছিল একটি সাদা রঙের প্রাইভেট কার। নিমিষেই সেই প্রাইভেট কার থেকে ৩ জন বেরিয়ে এসে তাকে জোরপূর্বক প্রাইভেট কারে উঠায়। তাদের একজন শাহজাহানের মোটর বাইক চালিয়ে চলে যায়। যে মোটর বাইক চালিয়ে সংসার চালান শাহজাহান।

প্রাইভেট কারটির পিছনের সিটের মাঝখানে বসানো হয় শাহজাহানকে। তার মোবাইল দুটি নিয়ে নেয় তার আগেই। তার দুপাশে ২ জন, সামনে ড্রাইভারের পাশের সিটে আরেকজন। তাদের হাতে লাঠি, রড। ভয়ে কুঁকড়ে যান শাহজাহান।

আঘাতে আঘাতে জর্জরিত করা হয় শাহজাহানকে। তার মানিব্যাগে থাকা ৮ হাজার টাকা কেড়ে নেওয়া হয়। এটিএম কার্ডের পিন নাম্বার নিয়ে মুখে ও মাথায় কাপড় বেঁধে এটিএম বুথে টাকা তুলতে যায় দুজন। এটিএম বুথে টাকা না থাকায় টাকা তুলতে পারেনি অপরাধীরা।

রাত অনুমান ২টার দিকে হাতিরঝিল মহানগর ব্রিজ এলাকায় প্রাইভেট কার থেকে নামিয়ে দেওয়া হয় শাহজাহানকে। তাকে শাসানো হয় এই ঘটনা কাউকে জানালে বা থানায় অভিযোগ করলে তাকেসহ তার স্ত্রী-সন্তানকে খুঁজে বের করে প্রাণে মেরে ফেলা হবে। জীবন ধারনের একমাত্র অবলম্বন মোটর বাইকটি হারিয়ে হতবিহ্বল শাহজাহান বাসায় ফেরেন রাত সাড়ে ৩টায়।

তার মাথায় কেবল বারবার ঘুরপাক খাচ্ছিলো বাইকার শাহনাজের চুরি হয়ে যাওয়া বাইক উদ্ধারের সেই কাহিনী। তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার), পিপিএম এর সরাসরি হস্তক্ষেপে শাহনাজের চুরি হয়ে যাওয়া বাইকটি মাত্র ১২ ঘন্টার মধ্যে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছিল শেরে বাংলানগর থানা পুলিশ।

পরদিন সকাল সাড়ে ১১টায় তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকারকে মোবাইল ফোনে ঘটনাটি জানান শাহজাহান। তাৎক্ষনিকভাবে তিনি তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল জোনের এডিসি ও এসিকে নির্দেশ দেন শাহজাহানের লুন্ঠিত মোটর বাইক, টাকা ও মোবাইল উদ্ধারের পাশাপাশি অপরাধীদের গ্রেফতার করতে।

এডিসি হাফিজ আল ফারুকের তত্ত্বাবধানে এসি সালমান হাসানের নেতৃত্বে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ইন্সপেক্টর রাশেদুজজামান, এসআই মার্গুব তৌহিদ, এসআই নজরুল ইসলাম ও হাতিরঝিল থানার এএসআই তরিকুল ইসলামের একটি টীম পরদিনই ২৭ ফেব্রুয়ারি আশুলিয়া, কেরানীগঞ্জ, বাডডা ও রামপুরা এলাকা থেকে হুমায়ুন, মহরম, কাউসার ও মনির নামে ৪ ডাকাতকে গ্রেফতারের পাশাপাশি লুন্ঠিত মোটর বাইক, টাকা ও মোবাইল উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি ডাকাতির মামলা হয়েছে। অন্যান্য পলাতকদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

ডিএমপি নিউজ

শেয়ার করুন !
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply