১৫০ বছরের সাজা হতে পারে অং সান সুচির

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

আবারো বড় ধরণের সাজার মুখে পড়তে যাচ্ছেন মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সুচি। সুচির বিরুদ্ধে দুর্নীতির আরো একটি অভিযোগ এনেছে দেশটিতে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে রাখা সামরিক জান্তা সরকার।

নতুন আনা এই অভিযোগটিসহ এ পর্যন্ত সুচির বিরুদ্ধে আনা হয়েছে ১১টি অভিযোগ।

শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, অং সান সুচির বিরুদ্ধে আনা সবগুলো অভিযোগ যদি প্রমাণিত হয়, তবে তিনি দেড়শো বছরের বেশি মেয়াদে সাজার মুখোমুখি হতে পারেন।

মিয়ানমারের এই নেত্রীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলোতে প্রতিটি মামলায় পৃথকভাবে ন্যূনতম ১৫ বছর করে কারাদণ্ড হতে পারে। আর সেই হিসেবে তার সাজার মেয়াদ হতে পারে ১৫০ বছরের বেশি।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ইনফরমেশন টিম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নিজের মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত একটি চ্যারিটি ফাউন্ডেশনের জন্য ৫ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার অনুদান গ্রহণ করেছিলেন ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সুচি।

এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার পুলিশ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।

অবশ্য বৃহস্পতিবার এই অভিযোগ আনা হলেও এর বিচারিক কার্যক্রম ঠিক কবে নাগাদ শুরু হতে পারে সেটি ওই বিবৃতিতে জানানো হয়নি।

এর আগে গত জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝিতে সুচির বিরুদ্ধে দুর্নীতির আরও ৫টি অভিযোগ এনেছিল জান্তা সরকার। সে সময় জানানো হয়েছিল, এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রতিটির জন্য ১৫ বছর করে কারাভোগ করতে হতে পারে তাকে।

শান্তিতে নোবেলজয়ী ৭৬ বছর বয়সী সুচির বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে ইতোমধ্যে প্রায় এক ডজন মামলা করেছে মিয়ানমারের জাতীয় ক্ষমতায় আসীন জান্তা।

রাজধানী নেপিদোর জান্তা নিয়ন্ত্রত আদালতেই বিচার চলছে সেসব মামলার। সব মামলায় যদি সুচি দোষী সাব্যস্ত হন, সেক্ষেত্রে তাকে কারাগারে কাটাতে হবে দেড়শো বছরেরও বেশি সময়।

সুচি অবশ্য তার বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!