সুশৃঙ্খল সড়কের জন্য শাজাহান খানের ১১১ সুপারিশ বাস্তবায়নে টাস্কফোর্স গঠন

0

সময় এখন ডেস্ক:

সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিল ১১১ দফা সুপারিশ করেছে। এসব সুপারিশ বাস্তবায়নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে প্রধান করে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বনানীতে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৭তম সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভা শেষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর জন্য সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ১১১ দফা সুপারিশ বাস্তবায়নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে প্রধান করে ট্রান্সফোর্স গঠন করা হয়েছে এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলামকে সদস্য সচিব করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশের আইজিপি, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব, ডিএমপি কমিশনার, উত্তর দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী, বিআরটিএ ও বিআরটিসির প্রধান প্রকৌশলী, বিআরটিএ/ বিআরটিসির চেয়ারম্যান, ডিটিসিএ-এর নির্বাহী পরিচালক, পরিবহন মালিক সমিতির প্রতিনিধি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের প্রতিনিধি, ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির প্রতিনিধি, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রতিনিধি, মো. সামসুল হক, সৈয়দ আবুল মকসুদ, ইলিয়াস কাঞ্চন ও হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি টাস্কফোর্সের সদস্য হবেন।

সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সড়ক পরিবহন ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে তাদের দাবি অনুযায়ী করণীয় সুনির্দিষ্ট করা হয়েছে। আমরা সড়ক পরিবহনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বসে আরও আলোচনার করবো। আগামী সপ্তাহের মধ্যে আমরা এর কার্যক্রম শুরু করবো।

বৈঠকে সড়কের নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ১১১ সুপারিশ বাস্তবায়ন করতে হলে রাজউক ও বিআরটিএকে সংযোজন করতে হবে। স্কুল কলেজ বিশেষ করে ভিকারুন্নেসা, স্কলাস্টিকার মত স্কুলেও পার্কিংয়ের কোনো ব্যবস্থা নেই। যত্রতত্র পার্টি সেন্টার গড়ে উঠছে, সেখানেও পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রাখা হয় না।

তিনি বলেন, আমি বলব, পার্কিংয়ের জায়গা ছাড়া যাতে কোনো স্থাপনা করার অনুমোদন দেয়া না হয়। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে আমাদের প্রথম কাজ হচ্ছে সচেতনতা বৃদ্ধি করা, এর কোনো বিকল্প নেই।

ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া বলেন, সড়কে শৃঙ্খলার প্রথম সমস্যা হচ্ছে নিয়ম না মানার সংস্কৃতি। প্রতিবছর ৬০ কোটি টাকার মত জরি’মানা আদায় হয়। পুলিশ সেবাখাত থেকে এখন রাজস্ব খাতের দিকে যাচ্ছে। বার বার জরি’মানা করার পরও নিয়ম মানছে না। এমনকি দায়িত্বশীল ব্যক্তিরাও উল্টোপথে যেতে দ্বিধাবোধ করেন না।

ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে সভায় সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাংসদ একাব্বর হোসেন, জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভাপতি সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা, কলামিস্ট আবুল মকসুদ, বিআরটিএ চেয়ারম্যান মশিউর রহমানসহ জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন !
  • 253
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply