ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়ায় বাবার মাথা কেটে নিল পাবজি আস’ক্ত তরুণ

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভিডিও গেমের নে’শা কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে, তার প্রমাণ মিললো ভারতে। তরুণদের কাছে হঠাৎ জনপ্রিয় হয়ে ওঠা ‘প্লেয়ার আননোনস ব্যাটেল গ্রাউন্ড’ বা পাবজি গেম খেলতে বাধা দেওয়ায় পিতাকে নির্ম’মভাবে হ’ত্যা করেছে ২৫ বছর বয়সী এক যুবক।

গেমের নে’শায় সে এতটাই হিংস্র হয়ে উঠেছিল যে, নিজের জন্মদাতার মাথা ও পা কুপি’য়ে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে।

দিন দুয়েক আগে কর্ণাটকের বেলাগবি জেলার কাকাতি গ্রামে ঘটেছে এ নৃশং’স ঘটনা।

পুলিশ জানায়, হ’ত্যাকারী যুবকের নাম রঘুবীর কুম্বার। পাবজি খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে সে তার ৬১ বছর বয়সী পিতা শংকর দেবাপ্পা কুম্বারকে কুপি’য়ে হ’ত্যা করে। নিহত শংকর অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, রঘুবীরের পাবজি খেলার খুব বেশি নে’শা ছিল। এ নিয়ে প্রায়ই পিতার সঙ্গে বাদানুবাদ হতো তার।

গত রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোর ৫টার দিকে রঘুবীর দেখে, বাসার ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। এতে রাগে হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে পিতার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে সে। পরিবারের অন্য সদস্যদের এক কক্ষে আটকে রেখে নিজের পিতাকে টুকরো টুকরো করে ফেলে গেমের নে’শায় হিংস্র হয়ে ওঠা এ যুবক।

প্রতিবেশীরা এ ঘটনা পুলিশকে জানালে আটক করা হয় রঘুবীরকে। তার বিরু’দ্ধে হ’ত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ বিষয়ে অধিকতর তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পাবজি খেলতে নিষেধ করায় কিশোরের আত্মহ’ত্যা

পাবজি গেম খেলার সময় মা তার হাত থেকে ফোন কেড়ে নিয়েছিলেন। সেই কারণে আত্মহ’ত্যা করল ১৭ বছরের এক কিশোর। সম্প্রতি ভারতের হরিয়ানায় এই ঘটনা ঘটেছে।

১০ম শ্রেণির পড়াশোনা শেষ করে ১ বছর ঘরে বসে ছিল এই কিশোর। তার বাবা একজন পুলিশ অফিসার। তিনি বলেন, ছেলেকে অনেক বুঝিয়েও পড়াশোনায় মন বসাতে পারেন নি। সারা দিন সে পাবজি খেলত।

‘শনিবার বিকেলে মা ছেলের ঘরে ঢুকে দেখে সে পাবজি খেলছে। তখনই ছেলের হাত থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় সে। তখন আমি ডিউটিতে ছিলাম। পরদিন সকালে ঘরে ঢুকে দেখে ছেলে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছে।’ বলেন মৃ-তের বাবা।

পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয় এই বিষয়ে এখনও কোন অভিযোগ জমা পড়েনি। তবে পুলিশ তদন্ত শুরু করছে।

শেয়ার করুন !
  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!