খাগড়াছড়িতে ঘরে ঢুকে গৃহবধূ ধ’র্ষণ, আদিবাসী যুবক আটক

0

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে এক গৃহবধূকে ধ’র্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রতন ত্রিপুরা (২৫) নামে এক আদিবাসী যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সকালে মহালছড়ির যৌথ কামার ত্রিপুরাপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক রতন ত্রিপুরা মহালছড়ির যৌথ খামার ত্রিপুরাপাড়ার সুখেন্দু ত্রিপুরার ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ২ কন্যা সন্তানের জনক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে নিজের বাড়িতে একাই ছিল ওই গৃহবধূ। তাকে একা পেয়ে রতন ত্রিপুরা ধ’র্ষণ করে পালিয়ে যায়। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর শনিবার সকালের দিকে মহালছড়ি থানা পুলিশ রতনকে তার বাড়ি থেকে আটক করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মহালছড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম ফকির বলেন, ধ’র্ষণের অভিযোগে রতন ত্রিপুরাকে আটক করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ধ’র্ষণের শি’কার ওই গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ওই গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

টাঙ্গাইলে গৃহবধূর স্নানের দৃশ্য ভিডিও করে টাকা দাবি, গ্রেপ্তার ৩

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এক গৃহবধূর স্নানের দৃশ্য মোবাইলে ভিডিও করে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা দাবি করার অভিযোগে ৩ যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উপজেলার ভাওড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে মির্জাপুর থানা পুলিশ চান্দুলিয়া ও কোটবহুরিয়া গ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার ৩ যুবক হলো- উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের চান্দুলিয়া গ্রামের বরকত, একই গ্রামের সোলাইমান এবং কোট বহুরিয়া গ্রামের আব্দুল আলীম।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার ৩ যুবক বেশ কিছুদিন আগে ওই গৃহবধূর নির্মাণাধীন বাড়িতে রাজমিস্ত্রীর কাজ করত। একদিন ওই গৃহবধূ বাথরুমে গোসল করতে গেলে ৩ যুবক গোপনে মোবাইলে স্নানের দৃশ্য ধারণ করে। পরে ফোন করে বিষয়টি জানিয়ে কয়েকটি স্থিরচিত্র ওই গৃহবধূর মোবাইলে পাঠায় এবং মোটা অংকের টাকা দাবি করে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার ওই গৃহবধূ মির্জাপুর থানায় অভিযোগ দিলে সন্ধ্যায় পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সায়েদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেপ্তার ৩ জনকে জিজ্ঞাসা’বাদ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন !
  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply