রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমার সরকার অনাগ্রহী: মাহাথির

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আবারও বাংলাদেশের পক্ষে দাঁড়িয়ে মিয়ানমারের তুমুল সমালোচনা করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। একই সঙ্গে এই সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারের অনাগ্রহী ভূমিকার সব দায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

গত মঙ্গলবার জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন ও ইসলামী সহযোগী সংস্থা ওআইসির যৌথ আয়োজনে ‘রোহিঙ্গা ক্রাইসিস : অ্যাওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে মাহাথির এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়াও ওআইসিভুক্ত বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। এর বাইরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, বেলজিয়াম, সুইডেন, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও প্রতিনিধিরাও অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের এবারের অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছানোর পর এই প্রথম কোনো সভায় বক্তব্য দিলেন মাহাথির। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটি স্পষ্ট যে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমার সরকার কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যাপারে অনাগ্রহী। তাই এই সমস্যার নিরসন এখন আমাদেরই করতে হবে।

কেননা এর দায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এড়াতে পারে না। মানবসৃষ্ট এই দুর্যোগ মোকাবিলার উদ্দেশ্যেই জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠা। এখন সংস্থাটির উচিত রোহিঙ্গা সমস্যা নিরসনে ভূমিকা রাখা। আসুন আমরা কালোকে কালো বলতে শুরু করি। মিয়ানমারের রাখাইনে যা ঘটেছে তা গণহ’ত্যা, পদ্ধতিগত ধ’র্ষণ এবং আরও বড় ধরনের মানবাধিকার ল’ঙ্ঘন।

চলতি শতাব্দীর সবচেয়ে বড় এই শরণার্থী সমস্যা দ্রুত সমাধানের আহ্বান জানিয়ে মাহাথির বলেন, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রা’সের শিকা’র হয়ে জীবনের নিরাপত্তার জন্য রোহিঙ্গারা ঘর ছেড়েছে। এই রোহিঙ্গাদের বেশিরভাগই বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নিয়েছে। ১২ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ায় আমরা বাংলাদেশকে সাধুবাদ জানাই। মালয়েশিয়াও যতটুকু সম্ভব করার চেষ্টা করেছে।

রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সহায়তার বাইরেও কক্সবাজারে একটি ফিল্ড হাসপাতাল পরিচালনা করছে মালয়েশিয়া। তার পরও এটি যথেষ্ট নয়। রোহিঙ্গাদের ভালো জীবনযাপনের জন্য বাংলাদেশ প্রচুর ত্যাগ স্বীকার করেছে। আমরাও আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের সাহায্য করব। আশা করি অন্য দেশগুলোও এগিয়ে আসবে। কারণ রোহিঙ্গারা যতদিন শিবিরে থাকবে, ততই তারা আরও হতাশ ও মরিয়া হয়ে উঠবে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে তিনি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ৪টি প্রস্তাব উত্থাপন করবেন। রোহিঙ্গাদের অবশ্যই মিয়ানমারে ফিরে যেতে হবে বলেও প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যে উল্লেখ করেন। খবর বেরনামা, সিএনএ ও সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের।

শেয়ার করুন !
  • 81
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply