এবার অ’বৈধ সম্পদ অর্জনকারী ২০ ভিআইপির তালিকা দুদকে

0

সময় এখন ডেস্ক:

অ’বৈধ ক্যাসিনোর মাধ্যমে অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন এমন ২০ জন ভিআইপির তালিকা ইতিমধ্যে দুদকের হাতে এসেছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি বিরো’ধী সংস্থাটির চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। ইতিমধ্যে তাদের বিরু’দ্ধে অনুসন্ধান শুরু হয়েছে বলেও তিনি জানান।

সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক প্রধান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই তথ্য জানান তিনি। তবে ওই তালিকায় কাদের নাম আছে সেটা তিনি বলেননি।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ক্যাসিনোর মাধ্যমে অ’বৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন এমন অভিযোগে ১৫ থেকে ২০ জনের তালিকা দুদকের হাতে এসেছে। তাদের অ’বৈধ সম্পদের অনুসন্ধান শুরু হয়েছে। যদিও ক্যাসিনো সংশ্লিষ্ট অপরাধের বিরদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া দুদকের কাজ নয়। শুধু অ’বৈধ সম্পদ অর্জনের অংশটুকু দুদকের তফসিলভুক্ত।

তিনি আরও বলেন, দুর্নীতি করে অ’বৈধ সম্পদ অর্জন করে কেউ পার পাবে না। শিগগিরই আইনের আওতায় তাদের আনা হবে।

যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের দুদক চেয়ারম্যান বলেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। সবাইকে জবাবদিহি করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিয়ে সম্রাটের সব কিছু বলে দিলেন স্ত্রী শারমিন!

সম্রাট শুরু থেকেই ‘সম্রাট’। ও শুধু নামে সম্রাট- এমন না, কাজেও সম্রাট। আর যে সহসভাপতি বা অন্য কেউ আছে, ওদের মতো না ও। আগে থেকেই ও চলাফেরা খুব ভালো ভালভাবে করতো। এসব কথা বলেছেন র‍্যাবের হাতে আটক হওয়া আলোচিত যুবলীগ নেতা (বহি’স্কৃত) ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের স্ত্রী শারমিন চৌধুরী।

ক্যাসিনোবিরো’ধী অভিযান শুরুর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সম্রাটপত্নী। তিনি বলেন, আমাদের দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে এই অভিযানের জন্য ব্যক্তিগতভাবে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাবো। তিনি যদি আরও আগে উদ্যোগ নিতো তাহলে আরও ভাল হতো। সম্রাটও তাহলে ধরা পড়ত আরও আগে।

সম্রাট নিয়মিত সিঙ্গাপুর কেন যেতেন- এমন প্রশ্নের জবাবে শারমিন চৌধুরী বলেন, ও সিঙ্গাপুরে জুয়া খেলতেই যেত। জুয়া খেলা ওর নে’শা, কিন্তু সম্পদ জমানো বা দোকান, গাড়ি এগুলো তার নে’শা না।

শারমিন জানান, ২ বছর ধরে সম্রাটের সাথে তার যোগাযোগ নেই। তার দাবি, ওর সম্পদ বলতে কিছুই নাই। ও যা ইনকাম করে ক্যাসিনো চালিয়ে, সব দলের জন্য খরচ করে। দল পালে, আর যা থাকে তা দিয়ে সিঙ্গাপুরে জুয়া খেলে। সম্পদ বলতে কিছুই নেই। আগে যেমন ছিল এখনও তেমন। সম্রাটের কোনো টান নেই ফ্ল্যাট, বাড়ি, গাড়ির প্রতি। ওর একমাত্র নে’শা জুয়া খেলা।

যোগাযোগ না থাকলে ক্যাসিনো বিষয় কীভাবে জানেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা বোঝাই যায়, জনপ্রিয়তার দেখলে বোঝা যায়, আর এরকম জনপ্রিয়তা কোন নেতার আছে বলেন? আর কোনো নেতার এমন জনপ্রিয়তা নেই। উত্তরায় একজন আছে নিখিল নামে, ওর এরকম জনপ্রিয়তা নেই।

যোগাযোগ না থাকার কারণ সম্পর্কে তিনি বলেন, আমার সাথে ওর একটু মিলতো কম। ও ছেলেপুলে নিয়েই থাকতে বেশি পছন্দ করত। আরো চাইতো না আমি কোনো ক্যামেরার সামনে আসি আমি, ওপেন ফেস হই। আর আমি শুরু থেকে নামাজ পড়তে পছন্দ করতাম, বাসায় থাকতে পছন্দ করতাম। ও চাইত আমি যেন এভাবেই চলি, মানুষের সামনে না যাই।

আগে তাকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে গেলেও দু’বছর ধরে সম্রাট তাকে সাথে নেয় না বলে জানান শারমিন চৌধুরী। বলেন, দু’বছর ধরে সিঙ্গাপুরে নেয় না, ওখানে বোধহয় একটা চায়না প্লাস মালয়েশিয়ান মিক্স একটা মেয়ের সাথে সম্পর্ক হয়েছে। ও গেলে তার সাথেই সময় কাটায় আরকি।

বিভিন্ন নারীদের সাথে তার মেলা’মেশার অভিযোগ নাকচ করে শারমিন চৌধুরী বলেন, না, বিভিন্ন নারীর সাথে না। আমাকে ২ বছর ধরে সিঙ্গাপুরে নেয় না। ওখানে বোধয় চায়না ও মালেশিয়ান বংশোদ্ভুত মিক্স একটা মেয়ের সাথে তার সম্পর্ক হয়েছে। সিঙ্গাপুর গেলে ওখানে ওর সাথেই সময় কাটাতো।

সম্রাটের আর কয়টি বাড়ি আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঢাকা শহরে আমার জানামতে শান্তিনগরের বাসা, এই বাসা আর ডোমিনাতে একটা ফ্ল্যাটে ৪ বছর আগে স্লো ভাবে দেয়া শুরু করছে, এখানে ৩০ নম্বরে। শান্তিনগরের তার অফিস সেটা তার নিজস্ব অফিস, যে ফ্লোরে তিনি বসতেন। বাকিগুলো আস্তে আস্তে খালি হয়ে গেছে।

সম্রাট মহাখালী যান না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ও এখানে আসে না ওপেন হার্ট সার্জারির রোগী সিঁড়ি ভাঙা নিষেধ। দেখা করতে হলে আমি কাকরাইলে যেতাম। অভিযানের পর আমার সাথে যোগাযোগ করে নাই ও। সবসময় ভাবতো আমি বোকা, আমি সব বলে দিব, আমাকে কিছুই বলেনি।

শারমিনের দাবি, সম্রাট চাইতো না অ’বৈধ টাকা সংসারের খরচ করতে। সে চাইতো না তার পরিবারের লোকজন অ’বৈধ টাকায় চলুক। সেজন্য সেসব টাকা দলের পেছনেই খরচ করতো। যুগ পাল্টেছে। টাকা না দিলে ছেলেপুলে আসে না। তাই সে সেখানেই খরচ করতো।

শেয়ার করুন !
  • 201
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply