পায়রাবন্দরে সার্ভিস জেটি ও হাইড্রলিক ক্রেন অপারেশন শুরু

0

অর্থনীতি ডেস্ক:

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পায়রাবন্দরে অপারেশনাল কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। এ কার্যক্রম আরও বেগবান করার জন্য নির্মিত হয়েছে ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ২৪ মিটার প্রস্থ বিশিষ্ট সার্ভিস জেটি।

এ জেটি থেকে পণ্য ওঠা-নামা করানোর জন্য ২৯ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬৪ টন লিফটিং ক্যাপাসিটি সম্পন্ন জার্মানির তৈরি মোবাইল হারবার ক্রেন বসানো হয়েছে। একই সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ৩০ টন ক্যাপাসিটির একটি মোবাইল হাইড্রলিক ক্রেন ও ২৫ টন ক্যপাসিটির ফর্ক লিফট।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় পায়রাবন্দর জেটিতে পণ্য পরিবহনের জন্য বসানো এ ক্রেন থেকে অপারেশনাল কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর ফলে এ জেটি থেকে পণ্য ওঠা-নামানোসহ জাহাজ থেকে কন্টেইনারে নামানো যেমন সহজ ও দ্রত সময়ে সম্পন্ন হবে, তেমনি জাহাজে মালামাল দ্রুত আপলোডও করা যাবে।

এ জেটিতে সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ সুবিধাও নিশ্চিত করা হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পায়রাবন্দরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট (লাইট এন্ড মুরিং) এস এম ইমতিয়াজ ইসলাম, উপ-পরিচালক (নিরাপত্তা) লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী পরিচালক (নিরাপত্তা) মো. সোহেল মীর ও সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) মো. আসাদুল্লাহ আশি প্রমুখ।

পায়রাবন্দরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট (লাইট এন্ড মুরিং) এসএম ইমতিয়াজ ইসলাম জানান, এই ৬৪ টন মোবাইল হারবার ক্রেনের মাধ্যমে হুক, গ্র্যাব ও শ্রেডার এ ৩ ধরনের অপারেশন কাজ করা হবে।

এ ছাড়া বন্দর এলাকায় ডিআইএসএফ প্রকল্প, কোল টার্মিনাল, ফাস্ট টার্মিনাল প্রকল্প, মাল্টিপারপাস টার্মিনাল নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। এ বন্দরে যাতে জাহাজ আসা-যাওয়ায় কোনো সমস্যা না হয় এ জন্য বেলজিয়ামভিত্তিক কোম্পানি জান ডি নুলের মাধ্যমে রাবনাবাদ চ্যানেলে ড্রেজিংয়ের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, বন্দরের কার্যক্রম শুরু হওয়ায় পণ্য আমদানি-রপ্তানির মাধ্যমে পটুয়াখালী, বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিল্পায়ন ও বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রাবন্দরের উদ্বোধন এবং ২০১৬ সালের ১৩ আগস্ট বন্দরে অপারেশনাল কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

শেয়ার করুন !
  • 109
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply