শ্যালিকাকে দিয়ে বোর্ড পরীক্ষার খাতা কাটানো প্রভাষককে শোকজ

0

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

শ্যালিকাকে দিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ১ম বর্ষের বোর্ড পরীক্ষার খাতা কা’টানোর অভিযোগে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার কুমিরা মহিলা ডিগ্রি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আদিত্য ব্যানার্জিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার কুমিরা মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ লুৎফুন আরা জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ১ম বর্ষের বোর্ড পরীক্ষার খাতা ছাত্রীকে দিয়ে দেখানোর জন্য প্রভাষক আদিত্য ব্যানার্জীকে শোকজ করা হয়েছে। আগামী ৩ দিনের মধ্যে তাকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। নোটিশের জবাব পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুমিরা মহিলা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আদিত্য ব্যানার্জী। এই প্রভাষকের শ্যালিকা খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলার কাটিপাড়া গ্রামের শংকর মহলদারের মেয়ে সোমা মহালদার। তিনি একই কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ৩য় বর্ষের ছাত্রী। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ২ম বর্ষের বোর্ড পরীক্ষার ৫০টি খাতা তাকে কা’টতে দেন ওই প্রভাষক।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলে দেখা যায়, ওই ছাত্রী ক্যাম্পাসে অনার্স ২ম বর্ষের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ের খাতা কা’টছেন। খাতাগুলো কে দিয়েছেন, কোথায় পেলেন প্রশ্ন করতেই বেরিয়ে পড়ে অজানা কাহিনী।

সোমা মহালদার বলেন, আমার দুলাভাই খাতাগুলো দিয়েছেন দেখার জন্য। তাই আমি দেখছি। এগুলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ১ম বর্ষের স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাসের (২০১১৫০১) খাতা।

আপনার কাছে কতগুলো খাতা রয়েছে- এমন প্রশ্নে ওই ছাত্রী বলেন, আমার কাছে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস বিষয়ের ৫০টি খাতা রয়েছে। এরপর তিনি রুমে গিয়ে বাকিখাতা বের করে দেখান। খাতায় দেখা যায় ওই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে চলতি বছরের ১ আগস্ট।

এদিকে বোর্ড পরীক্ষার খাতা শ্যালিকা অথবা ছাত্রীকে দিয়ে কা’টানোর বিষয়ে কুমিরা মহিলা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আদিত্য ব্যানার্জী জানিয়েছেন, বয়স একটু বেশি হওয়ার কারণে চোখে ঠিকমতো দেখতে পাই না। তাই শিক্ষার্থীর কাছে দিয়েছি দেখার জন্য।

শেয়ার করুন !
  • 74
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply