বঁটি হাতে টয়লেটে পড়ে ছিল মাদ্রাসা শিক্ষকের দেহ

0

নরসিংদী প্রতিনিধি:

নরসিংদীতে তোফাজ্জল হোসেন (৩০) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের গলা কা-টা ডেডবডি উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে মনোহরদী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন কুলি মিয়ার ভাড়া বাসা থেকে তার দেহ উদ্ধার করা হয়। স্ত্রীর দাবি তিনি আত্মহ’ত্যা করেছেন।

পুলিশ জানিয়েছে নিহ’ত মাদ্রাসা শিক্ষকের বাড়ি নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার পূবাইল গ্রামে। বাবার নাম মমতাজ উদ্দিন। তিনি একদুয়ারিয়া ইউনিয়নের দরবেশের কান্দা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন। গত ৬ মাস ধরে মনোহরদী বাসস্ট্যান্ডের পূর্বপাশে কুলি মিয়ার বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া ছিলেন।

স্ত্রী আয়েশা আক্তার হ্যাপীর (৩৫) বাড়ি পার্শ্ববর্তী কাপাসিয়া উপজেলার খিরাটি গ্রামে। তার বাবার নাম সিরাজুজ্জামান। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা’বাদের জন্য আয়েশা আক্তারকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ১৫ বছর আগে চালাকচর গ্রামের কাজিম উদ্দিনের সঙ্গে আয়েশা আক্তারের বিয়ে হয়। ওই সংসারে সামি (১৩) নামে তার এক ছেলে রয়েছে। গত ১০ বছর আগে স্বামী মারা গেলে তিনি বাবার বাড়ি চলে আসেন।

পরে মনোহরদীর একদুয়ারিয়া দরবেশের কান্দা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় ছেলেকে ভর্তি করান। একই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করতেন তোফাজ্জল হোসেন। সেই সুবাদে দু’জনের মধ্যে পরিচয় হয়। যা পরবর্তীতে প্রেমে গড়ায়। এরপর গত রমজান মাসে তারা নিজ সিদ্ধান্তে বিয়ে করে মনোহরদীতে ভাড়া বাসায় বসবাস করতে থাকেন।

বিয়ের পর কিছুদিন দু’জনের মাঝে সম্পর্ক মধুর থাকলেও গত ৩ মাস ধরে দেখা দেয় তি’ক্ততা। প্রায় প্রতিদিনই তাদের মধ্যে ঝগ’ড়া হতো।

স্ত্রীর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, আজ (রোববার) ভোর রাতে তোফাজ্জল টয়লেটে যান। দীর্ঘ সময় পরও তিনি বের না হওয়ায় স’ন্দেহ হয়। পরে দরজা ভে’ঙে দেখেন বঁটি দিয়ে নিজের গলা কে-টে ফেলেছেন তোফাজ্জল। এ সময় প্রচুর র’ক্তক্ষরণে টয়লেটেই মারা যান তিনি।

আয়েশা আক্তার বলেন, ২ মাস আগে তোফাজ্জল মাদ্রাসার শিক্ষকতা ছেড়ে দেন। এরপর সারাদিন বাসায় শুয়ে বসে সময় কাটাতেন। কোনো কাজ-কর্ম না করায় সংসারে আর্থিক সং’কট দেখা দিলে তারা ঋ’ণগ্রস্থ হয়ে পড়েন। এসব নিয়ে তার সঙ্গে প্রায়ই ঝ’গড়া হতো।

তিনি আরও জানান, ঋ’ণ পরিশোধ, সংসার এবং ছেলের পড়ালেখার খরচের জন্য সম্প্রতি স্বামীর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে ঝ’গড়া হয়। শনিবার রাতে খাবার শেষে তারা একসঙ্গে শুয়ে পড়েন। গভীর রাতে তোফাজ্জল টয়লেটে যান। দীর্ঘক্ষণ পরও বের না হওয়ায় টয়লেটের দরজা ভে’ঙে তাকে ওই অবস্থায় পান।

মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ডেডবডি উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার করুন !
  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply