রাজনীতির দু’র্বৃত্তায়নের মানসিকতা থেকে রাঙ্গার এই মন্তব্য: রাজ্জাক

0

সময় এখন ডেস্ক:

রাজনীতির দু’র্বৃত্তায়নের মানসিকতা থেকে জাতীয় পার্টির নেতা মশিউর রহমান রাঙ্গা নূর হোসেনকে নিয়ে বিরূ’প মন্তব্য করেছেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে ঘূ’র্ণিঝড় বুলবুলের প্রভা’বে ফসলের ক্ষয়ক্ষ’তি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

গত রোববার শহীদ নূর হোসেনকে ‘মা’দকাসক্ত’ দাবী করেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা। তার দাবি, নূর হোসেন ‘ইয়া’বাখোর’, ‘ফেন’সিডিলখোর’ ছিলেন।

রাঙ্গার এই মন্তব্যের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রাজ্জাক বলেন, গণতন্ত্রের জন্য আমাদের আকাঙ্ক্ষা যে কত তীব্র ছিল, কত দৃঢ় ছিল সেটি প্রমাণ করে নূর হোসেনের মতো একটি ছেলে তেমন শিক্ষিত না বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র না, সে বুকে যেভাবে লিখে রেখেছিল- স্বৈ’রাচার নিপা’ত যাক/ গণতন্ত্র মুক্তি পাক। এটি আমি যখন ভাবি আমি নিজে নিজেও তখন খুবই… আমাদের গণতন্ত্রের জন্য আমাদের ত্যাগ কতো বড় এবং আমরা কতো সাহসের পরিচয় দিয়েছি, কতো ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছি।

তিনি বলেন, তার (নূর হোসেন) প্রতি যে বিরূ’প মন্তব্য করা হয়েছে এবং তাকে ছোট করা হয়েছে, এটা খুবই দুঃখজনক। নূর হোসেনের নাম এ দেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে, মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে এবং আমাদের সকলের জন্য সে একটি দৃষ্টান্ত, উদাহরণ। কাজেই এটা বলা ঠিক হয়নি।

তাকে বলা হয়েছে নে’শাখোর, ফেন’সিডিল খায়, এটা বলা আমি মনে করি খুবই দুঃখজনক। তখন সেই ইয়া’বা ছিলই না এবং ফেন’সিডিলও অতটা ব্যাপকভাবে প্রচার হয়নি। এটা বলা দুঃখজনক, বলেন কৃষিমন্ত্রী।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এটা হয়েছে কেন? বার বার বাংলাদেশে এবং এই অঞ্চলে সামরিক বাহিনী এবং সামরিক স্বৈ’রাচাররা এসেছে এবং তারা এসে রাজনীতিতে দু’র্বৃত্ত ও ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে ক’লুষিত করেছে। রাজনৈতিক দু’র্বৃত্তায়নের ফলেই বাংলাদেশে রাজনীতি ক’লুষিত হয়েছে। আদর্শের রাজনীতি থেকে আমরা অনেক দূরে সরে গিয়েছি।

তিনি বলেন, যারা এ ধরনের মন্তব্য করে আমি মনে করি তারা অনেকেই স্বৈ’রাচারের সাথে জড়িত ছিল এবং রাজনীতিতে দু’র্বৃত্তায়নের সাথেও জড়িত ছিল। সেই মানসিকতা থেকেই এই ধরনের মন্তব্য আসতে পারে।

জাতীয় পার্টি তো আওয়ামী লীগের সঙ্গেই রয়েছে- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমরা একটা দল তারা আরেকটা দল। পৃথিবীর অনেক দেশেই ক্ষমতা বা রাজনীতিতে ঐক্য হয় কোনো কোনো ইস্যুতে বা আন্দোলনের ইস্যুতে। কিন্তু তাদের সাথে আমাদের আদর্শের অনেক দূরত্ব রয়েছে। এটি সাময়িক কোনো কারণে হয়েছে। সেটা আপনারা বলতেই পারেন।

এর অর্থ এই না যে তারা যদি আমার কোনো ঐক্যের কোনো সরকারের কোনো যুক্তফ্রন্ট বা কোনো মহাজোটের কোনো দল যদি ভুল করে বা কোনো রাষ্ট্র বিরো’ধী কোনো কার্যকলাপে লিপ্ত হয়, সেটা আমরা প্র’তিবাদ করব না। অবশ্যই আমরা প্র’তিবাদ করব। তাদেরকে সংশোধন হওয়ার জন্য আমরা অবশ্যই বলব।

মশিউর রহমান রাঙ্গার বিরুদ্ধে আপনারা কোনো ব্যবস্থা নেবেন কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, দেখি সে কী করে। সারা জাতি ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছে, তীব্রভাবে প্র’তিবাদ করেছে। আমি মনে করি তাদের বোধদয় হবে এবং সুস্থ রাজনৈতিক ধারার সাথে নিজেদেরকে সংহত রাখার চেষ্টা করবে।

শেয়ার করুন !
  • 92
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply