রেল-দুর্ঘটনা ঘটছিল যখন, তখন ঘুমিয়ে ছিলেন সেই স্টেশন মাস্টার!

0

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুর এক্সপ্রেস উল্লাপাড়া স্টেশনের পূর্বে ৯টি বগি লাইন’চ্যুত হয়ে ইঞ্জিনসহ ৩টি বগিতে আগুন ধরে যায়। ঘটনাটি ঘটে দুপুর ২টায়।

এ ঘটনার পর উল্লাপাড়া সহকারি স্টেশন মাস্টারের কর্তব্যরত অবস্থায় অফিসে ঘুমিয়ে থাকার ছবি গেল বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দেখা যায় কক্ষে দিনের আলো এবং ঘড়িতে বাজছে ২টা ৩ মিনিট। উল্লাপাড়া সহকারী স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম কর্তব্যরত অবস্থায় তার অফিস রুমে টেবিলের উপরে ঘুমিয়ে আছেন।

সেই ভাইরাল হওয়া ছবিটিকে ঘিরে অনেকের মনে সৃষ্টি হয়েছে নানা প্রশ্ন। সবার বক্তব্য, যখন রেল দুর্ঘটনাটি ঘটে, তখন স্টেশন মাস্টার ঘুমাচ্ছিলেন!

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবিটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকে স্থানীয়রা স্টেশন মাস্টারের প্রতি ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন এভাবে যদি স্টেশন মাস্টার কর্তব্যরত অবস্থায় ঘুমিয়ে যদি থাকে তাহলে যে কোন সময় এর চেয়ে আরো বড় কোন ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে ভাইরাল হওয়া একটি ছবিটির সময়কাল নিয়ে, ঘড়িতে যে সময় দেখা যাচ্ছে তা কি ট্রেন দুর্ঘটনার দিনের নাকি তারও অনেক আগে না পরে তোলা হয়েছে।

এ বিষয়ে সহকারী স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, যে ছবিটি ভাইরাল হয়েছে তা ট্রেন দুর্ঘটনার পরের দিন শুক্রবার ভোরের দিকে তোলা হতে পারে। কারণ সারা রাত ডিউটি করার পর সকালে ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। ওই সময় হয়তো কেউ ছবিটি তুলেছে।

তাছাড়া কর্তব্যরত অবস্থায় তার রুমে টেবিলের উপরে ঘুমিয়ে থাকা ভাইরাল হওয়া ছবি তারই বলে স্বীকার করেছেন।

কিন্তু ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায় উল্লাপাড়া সহকারী স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম যখন ঘুমিয়ে ছিলেন সে সময় একটি ছবিতে ঘড়িতে বাজে ২টা ৩ মিনিট এবং ছবিটি ছড়িয়ে পড়ে বৃহস্পতিবার, দুর্ঘটনার পরে ওইদিনই রাত ৯টা বেজে ৪৫ মিনিটে।

কিন্তু স্টেশন মাস্টার বলছেন ছবিটি ট্রেন দুর্ঘটনার পর দিন শুক্রবার ভোরে তোলা হতে পারে।

তখন তাকে প্রশ্ন করা হয়, ছবির সময় ভোর হলে ঘড়িতে ২টা বাজছিলো কীভাবে? তাছাড়া ফেসবুকে প্রকাশিত ছবিটি দেখা যাচ্ছে বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টায়। এটা কীভাবে সম্ভব?

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোন সদুত্তর দিতে পারেননি উল্লাপাড়া সহকারি স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম।

শেয়ার করুন !
  • 313
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply