‘তারা জানেনা, কার বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে’- জরি’মানার পর শাকিবের প্র’তিক্রিয়া

0

বিনোদন ডেস্ক:

শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ দুপুর ১২টার দিকে রাজউক কর্তৃপক্ষ রাজধানীর নিকেতনে নকশা না মেনে বাড়ি নির্মাণ করায় তাকে এ জরি’মানা করে। প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফ হোসেন অর্থদ’ণ্ডটি দেন।

বিষয়টি নিয়ে বেশ ক্ষু’ব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন শাকিব। কোনো ধরনের নোটিশ ছাড়াই রাজউকের হঠাৎ আগমন ও জরি’মানায় শাকিব খান বেশ অবাক হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমার ছোট বোনের স্বামী নিকেতনের বাড়ির ওখানে ছিল। হঠাৎ রাজউক থেকে কয়েকজন লোক এলো। এসেই কিছু না বলেই জরি’মানার কাগজ দিল। তারপর বাড়ির ওখানে কয়েকজন ছিল, তাদের গাড়িতে উঠতে বলা হলো। আগে থেকেও কোনো নোটিশ করেনি। বুঝলাম না এটা কেমন অভিযান! যারা অভিযানে এসেছিলেন তারা জানেনা, কার বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে।

বিষয়টি ‘ঠেকিয়ে টাকা নেওয়া’ মনে করছেন শাকিব খান। তার ভাষ্য, বলা হচ্ছে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা না দিলে ১ বছরের জেল দেওয়া হবে! এটা কেমন কথা? এখানে তো গুন্ডা মা’স্তানির কিছু নেই।

শাকিব খান বলেন, এটা ইঞ্জিনিয়ারের ব্যাপার। রাজউকের নিয়ম মেনেই বাড়ি বানিয়েছি। ইঞ্জিনিয়ার হয়তো বাড়ির ক্যান্টিলিভার (বারান্দা) ১ ফিট বাড়িয়েছে। এটা তো এমন কিছু না যে জেল-জরি’মানা করতে হবে। আশপাশে যতগুলো বাড়ি আছে বেশির ভাগই বারান্দা বাড়ানো।

তিনি বলেন, এ বিষয়টি নোটিশ দিয়ে বললেই পারত! এভাবে অভিযান করার তো কিছু নেই। সামান্য বিষয়টিকে কেউ ইনটেনশনালি খোঁ’চা দিয়েছে। আমি পুরো ব্যাপারটা নিয়ে হতবাক। আর শুধু আমার বাড়ি কেন? আশপাশে যে বাড়িগুলো আছে সেগুলোতেও দেখুক। সেগুলোতেও বারান্দা বাড়ানো আছে। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইন সবার জন্য সমান হোক। আজ এসে ১০ লাখ টাকা চাইল। আগামীকাল এসে অন্য কেউ অভিযান করে বলবে ২০ লাখ টাকা দেন, নইলে জেল দেব। এটা কী ধরনের আইন আমার মাথায় ঢুকছে না!

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে রাজউকের জোন (৪) অথোরাইজড অফিসার মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আজ সকাল থেকে নিকেতন এলাকায় রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালাচ্ছেন। অভিযানের সময় শাকিব খান ওরফে রানা’র বাড়িটি নকশা না মেনে নির্মাণ করা হয়েছে বলে দেখা গেছে। এ কারণে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করা হয়। রাজউকের তদন্তে দেখা যায়, ওই বাড়ির ছাদটি নকশা মেনে করা হয়নি। আমরা বাড়ির মালিক চিত্রতারকা না অন্য কেউ, সেটি দেখিনি। দেখার প্রয়োজনও মনে করিনি। বাড়ির নম্বর প্লেটে মালিকের নাম হিসেবে লেখা ছিল, শাকিব খান রানা। বাড়ির কেয়ারটেকার পরিচয়দানকারী একজন কাগজপত্র দেখাতে আসলে বাড়ির নকশা সংক্রান্ত অ’সংগতি ধরা পড়ে। নিয়ম মেনেই জরি’মানা করা হয়েছে।

শাকিব খান গুলশানে তার অন্য একটি বাড়িতে থাকেন। নিকেতনে তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় রয়েছে। পাশাপাশি নতুন একটি বাড়ি নির্মাণ করছেন তিনি। সেই বাড়ির জন্যই তাকে জরি’মানা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!