হলি আর্টিজান ঘটনার সাড়ে ৩ বছর পর রায়: ৭ জ’ঙ্গির ফাঁ’সি

0

সময় এখন ডেস্ক:

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জ’ঙ্গি হাম’লার ঘটনায় সন্ত্রা’সবিরো’ধী আইনে করা মামলায় ৭ জ’ঙ্গির মৃ’ত্যুদ’ণ্ড। আর খালাস পেয়েছে মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান।

আজ বুধবার ঢাকার সন্ত্রা’সবিরো’ধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান এই ভ’য়াবহ জ’ঙ্গি হাম’লা মামলার রায় ঘোষণা করেন। প্রায় সাড়ে ৩ বছর পর ভ’য়াবহ এই জ’ঙ্গি হাম’লা মামলার রায় ঘোষণা হলো।

বুধবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে প্রিজনভ্যানে কারাগা’র থেকে তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় প্রিজনভ্যান থেকে নেমে আঙুল উঁচিয়ে হাসিমুখে আদালতের ভেতর প্রবেশ করে ৮ আসামি। এরমধ্যে একজনের পায়ে সমস্যা থাকায় সে ক্রাচে ভর করে আদালতে প্রবেশ করে। পরে রায় ঘোষণা উপলক্ষে এজলাসে হাজির করা হয় এ মামলার ৮ আসামিকে।

ফাঁ’সির দ’ণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হল- রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, হাতকাটা সোহেল মাহফুজ, হাদিসুর রহমান সাগর, রাশেদ ইসলাম ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, শরিফুল ইসলাম ওরফে খালেদ ও মামুনুর রশীদ ওরফে রিপন। আর খালাস পাওয়া আসামির নাম মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান।

রায় ঘোষণার আগে কারাগা’র থেকে আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়েছিল। রায় ঘোষণা শেষে তাদের সাজা পরোয়ানা দিয়ে আবার কারাগা’রে পাঠানো হয়েছে।

ওই জ’ঙ্গি হাম’লায় নিহ’ত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) মোহাম্মদ রবিউল করিমের মা করিমন নেছা। মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার কাটিগ্রামের নিজ বাড়িতে তাৎক্ষণিক প্রতি’ক্রিয়ায় তিনি বলেন, আজকের দিনটির জন্য সাড়ে ৩ বছর অপেক্ষা করেছি। অভিযুক্তদের ফাঁ’সির রায় হওয়ায় আমি সন্তষ্ট। দ্রুত এই রায় কার্যকরের দাবি জানাচ্ছি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু রায় ঘোষণার পর আদালত প্রাঙ্গণে তাৎক্ষণিক প্রতি’ক্রিয়ায় বলেন, সন্ত্রা’সবিরো’ধী আইনে জ’ঙ্গিদের বিচার করা হয়েছে। তাদের অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত।

এদিকে, আসামিপক্ষের আইনজীবী দেলয়ার হোসেন জানিয়েছেন, উচ্চ আদালতে আবেদন করা হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালরে ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজানে হাম’লা চালিয়ে বিদেশি নাগরকিসহ ২০ জনকে নৃশং’সভাবে হ’ত্যা করে জ’ঙ্গিরা। তাদের হাম’লায় ২ পুলিশ কর্মকর্তাও শহীদ হন।

এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ১ বছর বিচারিক কার্যক্রম শেষে ২৭ নভম্বের রায় ঘোষণার দিন ঠিক করেন ঢাকার সন্ত্রা’সবিরো’ধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান। মামলায় ২১১ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১৩ জন সাক্ষ্য দেন।

শেয়ার করুন !
  • 226
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!