সাইকেল মেরামতে দেরি দেখে পুলিশের কাছে শিশুর চিঠি!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

প্রায় ২ মাস ধরে সাইকেল মেরামতকারীর দোকানে পড়ে আছে দুটো সাইকেল। বারবার তাগিদ দেওয়ার পরও সেগুলো মেরামত করে দিচ্ছিল না মেকানিক। শেষমেশ বাধ্য হয়ে চিঠি লিখে পুলিশের কাছে দোকানির নামে অভিযোগ জানিয়েছে ১০ বছর বয়সী এক শিশু।

সম্প্রতি ভারতের কেরালায় ঘটনাটি ঘটেছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।

খবরে বলা হয়, ৫ম শ্রেণিতে পড়ুয়া কোজিকোড়ে এলাকার ওই শিশুটির নাম আবিন। গত ২৫ নভেম্বর মেপ্পায়ুর পুলিশ স্টেশনে ওই চিঠিটি পাঠায় সে।

মালায়ালাম ভাষায় লেখা চিঠিতে আবিন জানায়, সেপ্টেম্বরের ৫ তারিখে সে ও তার ভাই এলাকার একটি মেকানিকের দোকানে দু’জনের ২টি সাইকেল মেরামত করতে দেয়। কিন্তু প্রায় ২ মাস ধরে বারবার তাগিদ দেওয়ার পরও দোকানদার তাদের সাইকেল মেরামত করে দিচ্ছেন না। বরং প্রায়ই তার দোকান বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

আবিন আরও জানায়, এ ব্যাপারে সাহায্য করার মতো তাদের বাড়িতে কেউ নেই। ফলে পুলিশ যেন তাদের হয়ে ব্যাপারটির একটি গতি করে দেয়।

গত বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) কেরালা পুলিশ আবিনের হাতে লেখা ওই চিঠিটির একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে জানায়, ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা রাধিকা এনপি কেন সাইকেল দুটো মেরামত করে ফেরত দেওয়া হচ্ছে না, তা জানতে ওই দোকানে যান। দোকানদার জানান, গত কিছু দিন ধরে তিনি অসুস্থ ছিলেন। এছাড়া ছেলের বিয়ে উপলক্ষেও তাকে ব্যস্ত সময় পার করতে হয়েছে। তবে খুব শিগগিরই তিনি সাইকেল দুটো ফেরত দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

এরপর ফেসবুকেই এ ঘটনার আপডেটে পুলিশ জানায়, ওই দুই ভাইকে তাদের সাইকেল মেরামত করে ফেরত দেওয়া হয়েছে। সাইকেলের সঙ্গে আবিন ও তার ভাইয়ের ছবিও শেয়ার করে তারা।

কেরালা পুলিশের এমন শিশুবান্ধব ও আন্তরিক তৎপরতার জন্য ফেসবুকবাসী তাদের প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানাচ্ছে। ভালোবাসা জানাচ্ছে আবিন ও তার ভাইকে।

শেয়ার করুন !
  • 547
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply