আজ মহান বিজয় দিবস: ধ্বনিত হচ্ছে- জয় বাংলা, বাংলার জয়

0

সময় এখন ডেস্ক:

আজ মহান বিজয় দিবস। বাঙালির জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জনের দিন। আজ বাংলার আকাশে-বাতাসে ধ্বনিত হবে ‘জয় বাংলা, বাংলার জয়’।

বিজয়ের গৌরবে গৌরবান্বিত বাঙালি এবারের বিজয় উৎসব পালন করবে আরও বিস্তৃত পরিসরে। আজ ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকার, আল-বদর ও আল-শামসের নাম রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রকাশ করা হয়েছে। বিজয়ের দিনে শপথ নেয়া হবে এখনও যারা কাদের মোল্লাদের ‘শহীদ’ বলে তাদেরও মূলো’ৎপাটন করা হবে। বিজয়ের আনন্দ মিছিলে ভেসে যাবে সব স্বাধীনতাবিরো’ধীর কূ’টচাল।

মহান বিজয় দিবস ঊপলক্ষে পৃথক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর প্রাক্কালে দেশ, গণতন্ত্র ও সরকারবিরো’ধী সব ষড়’যন্ত্র প্র’তিহত করে মহান মুক্তিযু’দ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের এই উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা রক্ষা এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য এ বিজয় দিবসে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

মহান বিজয় দিবসে বাংলার মানুষ আরও একবার ফিরে যাবে ১৯৭১ সালের সেই দিনে। আজকের দিনেই যে ৯ মাসের যু’দ্ধ শেষে জন্ম নেয় স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ। ৯৩ হাজার পাকিস্থানি সৈন্য ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) আত্ম’সমর্পণের মাধ্যমে সূচিত হয়েছিল সেই কাঙ্খিত বিজয়।

আজ ভোরে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা ঘটবে। লাখো মানুষের গন্তব্যস্থল হবে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধ। সেখানে শহীদদের প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জানাবে সবাই। দিনভর বাংলার পথে-প্রান্তরে মানুষ বিজয়ের আনন্দ উপভোগ করবে। একইভাবে তারা স্মরণ করবে মহান মুক্তিযু’দ্ধের সব শহীদকে। স্থানে স্থানে তৈরি করা হবে বিজয়ের মঞ্চ। সেখানে চলবে বিজয় দিবসের কবিতা, গান, আবৃত্তি।

জাতি আজ স্মরণ করবে স্বাধীনতা সংগ্রামের মহান নায়ক বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আরও দৃঢ়’প্রত্যয়ী হবে নতুন প্রজন্ম। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতেও শ্রদ্ধা জানাবে লাখো মানুষ। কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করা হবে আমাদের মহান মুক্তিযু’দ্ধে সহায়তাকারী বন্ধুরাষ্ট্র ভারতকে, যারা সে সময় ১ কোটি মানুষকে আশ্রয়, মুক্তিযো’দ্ধাদের প্রশিক্ষণ আর সাহস জুগিয়েছিল।

আজ সরকারি ছুটির দিন। যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালনের জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি উদযাপনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা ওড়ানো হয়েছে। ঘরে ঘরে উড়বে লাল-সবুজ পতাকা। সূর্যোদয়ের সময় সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের স্মৃতির প্রতি জাতির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শ্রদ্ধা জানান জাতীয় নেতারাও।

বিজয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে জাতীয় সংবাদপত্রগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ সংখ্যা। বাংলাদেশ বেতার, বিটিভি, বেসরকারি রেডিও এবং টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হচ্ছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। ইতিমধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কদ্বীপ, প্রধান সরকারি ভবন, প্রতিষ্ঠানে আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

দেশের প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, বিজয় শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, বীর মুক্তিযো’দ্ধাদের সংবর্ধনা, স্বাধীন বাংলা বেতার ও দেশবরেণ্য শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা আয়োজন করা হয়েছে।

বিজয় দিবসের কর্মসূচি: মহান বিজয় দিবস উদযাপনে জাতীয় পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। আজ প্রত্যুষে ঢাকায় ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হবে। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। এরপর মুক্তিযু’দ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর নেতৃত্বে উপস্থিত বীরশ্রেষ্ঠ পরিবার, যু’দ্ধাহত মুক্তিযো’দ্ধা ও বীর মুক্তিযো’দ্ধারা পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।

বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনীতিক, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। সকাল সাড়ে ১০টায় তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত বাহিনীর বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমভিত্তিক যান্ত্রিক বহর প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। রাষ্ট্রপতি এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রীও এই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। রাজধানীসহ দেশের বড় বড় শহরগুলোর প্রধান সড়ক ও সড়ক দ্বীপ জাতীয় পতাকায় সজ্জিত করা হবে। রাতে গুরুত্বপূর্ণ ভবন ও স্থাপনায় করা হবে আলোকসজ্জা। হাসপাতাল, কারাগার ও এতিমখানাগুলোতে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

আওয়ামী লীগের কর্মসূচি: আজ সূর্যোদয় ক্ষণে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবন ও দেশব্যাপী সংগঠনের কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। সকাল ৬টা ৩৪ মিনিটে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন, ৮টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানো হবে। এছাড়া সকাল ১০টায় টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা, জিয়ারত, দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে দলটি। আগামীকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম: সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম- মুক্তিযু’দ্ধ ’৭১ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শিখা চিরন্তন বেদি সংলগ্ন স্বাধীনতা চত্বরে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এর আগে সকাল ৮টায় ফোরামের নেতারা সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

চট্টগ্রামে নানা আয়োজন: চট্টগ্রামে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ভোরে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা। ধুয়েমুছে পরিষ্কার করা হয়েছে নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও আশপাশের স্থান। সকালে নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মনোমুগ্ধকর প্রদর্শনী ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেবেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান।

সকাল ১০টায় নগরীর হালিশহর থানার বড়পোল এলাকায় ২৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ১ হাজার মিটার দৈর্ঘ্যের জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হবে।

এর আগে সুর্যোদয়ের পরপরই চট্টগ্রাম সিটি মেয়র, প্রশাসনের কর্মকর্তা, মুক্তিযো’দ্ধা ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

শেয়ার করুন !
  • 3.8K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply