এবার গান চুরি করে বাংলাদেশ-ভারতে সমালোচিত নোবেল!

0

বিনোদন ডেস্ক:

সঙ্গীত জীবনের শুরু থেকে আলোচনার চেয়ে সমালোচনাই বেশি মাঈনুল আহসান নোবেলের নামে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তরুণীর আ’পত্তিকর ছবি প্রকাশের পর শ্লী-লতাহা’নির অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। এবার গান চুরির অভিযোগে আবারও নতুন করে আলোচনায় রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা’-খ্যাত নোবেল।

নোবেলের বিরু’দ্ধে গান চুরির অভিযোগ তুলেছেন ‘অ্যাবাউট ডার্ক’ ব্যান্ড এর ভোকালিস্ট নাসির উল্লাহ। অভিযোগ ওঠার পরই গত বৃহস্পতিবার নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে গানটি মুছে ফেলেন নোবেল।

নোবেলের বিরু’দ্ধে ওই ব্যান্ড সদস্যের অভিযোগ, বুধবার রাত ১টায় নোবেলের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে ‘দেশ’ নামের একটি গান আপলোড করা হয়, যেটির কথা ও সুর নিজের বলে দাবি করেন নোবেল। কিন্তু এই গানটির কথা ও সুর হুবহু মিলে যায় ব্যান্ড ‘অ্যাবাউট ডার্ক’-এর গান ‘তুমি’ গানটির সঙ্গে। চলতি বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি গানটি প্রকাশ করে ‘অ্যাবাউট ডার্ক’।

‘অ্যাবাউট ডার্ক’ এর ভোকাল নাসির ১৯ ডিসেম্বর রাতে ফেসবুকে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। যেখানে তিনি ‘অ্যাবাউট ডার্ক’ এর অরিজিনাল গানটির ইউটিউব লিংক দেন। পাশাপাশি নোবেলের নিজের নামে ‘দেশ’ শিরোনামের লিংকটিও দেওয়া হয়।

তিনি লিখেছেন:

Too many guess work is going on regarding this Tumi vs Desh (2ta name e amader deya :D) wrote this song back in 2005 not sure noble tokhon koto tuku chilo anyway. please guys and girls calm down this has happened before it happened again. please check Noble’s Apology post from June 06 2018. Hope this will clear all the doubts and drama. thank you everyone for your support. 💗💗 peace.

অর্থাৎ, ‘আবারও নোবেল স্ট্রাইক! এতবার নি’ষেধ করার পর আমার কথা শুনলো না। আমার হাতে পায়ে ধরার পরও আমি তাকে গানটি দেইনি। আমার গান তাকে আমি কেন দেব? তার নাকি একশো গান আছে, তাহলে আমার গান কাভার কেন করে। কাভার করেছে ঠিক আছে তাতে আবার নাম দিয়েছে তার নিজের।’

পুরো বিষয়টা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই বাংলাদেশ ও ভারতে তার গানের ভক্তদের সমালোচনার মুখে পড়েন নোবেল। বি’তর্কও শুরু হয়েছে জোরদার।

এ নিয়ে নোবেলের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তার ফোন আনরিচেবল দেখায়। তবে বিষয়টি আরেকটু খোলাসা করেন ‘অ্যাবাউট ডার্ক’ ব্যান্ডের ভোকালিস্ট নাসির উল্লাহ জানান, ২০১৬ সালে ‘অ্যাবাউট ডার্ক’ প্রতিষ্ঠিত হয়। গান প্রকাশের শেষ সময়ে নোবেল আমাদের ব্যান্ডে যোগ দেয়। তবে ব্যান্ডের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি আত্ম’সাৎ এর অভিযোগে তাকে ব্যান্ড থেকে কিছুদিন পরই বের করে দেওয়া হয়।

সম্প্রতি নোবেল যে গানটি নিজের বলে প্রকাশ করেছিলো গানটি ২০০৫ সালে আমার লেখা। ২০১৬ সালে গানটিতে ২টি লাইন সংযোজন করে নোবেল। তবে তাকে দল থেকে বের করে দেওয়ার পর আমরা নোবেলের ওই ২টি লাইন বাদ দিয়ে গানটি নতুন করে ‘তুমি’ শিরোনামে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশ করেছি।

১ বছর আগেও নোবেল এই গানটি নিজের দাবি করে প্রকাশ করে। তবে আলোচনার মুখে সে সময়ও গানটি সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় সে। আর এবার যে গানটি নোবেল প্রকাশ করেছে সেটা আমাদের গান প্রকাশের আগে প্রাকটিস করা গানের রেকর্ডেড ভার্সনটা।

শেয়ার করুন !
  • 66
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!