ভারতে বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার দেখে অভিভূত কিউবান রাষ্ট্রদূত

0

অনলাইন ডেস্ক:

ভারতের দিল্লিতে প্রেস ক্লাব ইন্ডিয়ায় ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’ দেখে অভিভূত হয়েছেন কিউবার নতুন রাষ্ট্রদূত আলেজন্দ্রো সিমানকাস মারিন।

মিডিয়া সেন্টারে বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানাদিক সংবলিত একটি স্থায়ী চিত্র প্রদর্শনী রয়েছে। সেখানে রয়েছে ১৯৭৩ সালের বঙ্গবন্ধু ও কিউবার বিপ্লবী নেতা ফিদেল কাস্ত্রোর একান্ত বৈঠকের আলোকচিত্র। ওই বৈঠকের পরে কাস্ত্রো বঙ্গবন্ধুকে ‘হিমালয়ের সমান মানবপ্রেমী’ বলে অভিহিত করেছিলেন।

আলোকচিত্রটি দেখে রাষ্ট্রদূত মারিন বলেন, এখানে ফিদেল ও বঙ্গবন্ধুর বিরল আলোকচিত্র দেখে আমি মুগ্ধ। বঙ্গবন্ধু কিউবায় অসম্ভব জনপ্রিয়। যেমন ফিদেল ভারত ও বাংলাদেশেও জনপ্রিয় রাষ্ট্রনেতা।

রাষ্ট্রদূত মারিন ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশেরও দায়িত্বপ্রাপ্ত। গত সেপ্টেম্বর মাসে নয়াদিল্লির বাংলাদেশ হাইকমিশনের সহযোগিতায় এই মিডিয়া সেন্টার স্থাপিত হয়। উদ্বোধন করেছিলেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

লতার মৃত্যুতে ২ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা ভারতে

২৭ দিন ধরে হাসপাতালে লড়াই করে অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকর। রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা ১২ মিনিটে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।

লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এক টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, তার চলে যাওয়া এমন এক শূন্যতা তৈরি করল, যা কখনই পূরণ হওয়ার নয়। ভারতীয় সংস্কৃতির একজন কিংবদন্তি হিসেবেই লতা মঙ্গেশকরকে মনে রাখবে আগামী প্রজন্ম, যার সুরেলা কণ্ঠ প্রজন্মের পর প্রজন্মকে মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছে।

ভারতরত্ন লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। বাংলা গান ও পূর্বের শিল্পীদের এত ভালবাসা দেওয়ায় প্রয়াত কোকিলকণ্ঠীকে তিনি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

এদিকে লতার মৃত্যুতে ভারত সরকার ২ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে। জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে। পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পন্ন হবে লতা মঙ্গেশকরের শেষকৃত্য।

উল্লেখ্য, করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় গত ১১ জানুয়ারি লতাকে মুম্বইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। নিউমোনিয়াতেও আক্রান্ত ছিলেন তিনি। প্রথম থেকেই তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল।

৩০ জানুয়ারি শিল্পীর কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। কিন্তু বয়সজনিত নানা সমস্যার কারণে শেষ পর্যন্ত আর লড়তে পারলেন না। লাখো ভক্তকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!